বুধবার, ২৪ নভেম্বর ২০২১, ০৭:১৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
কুমিল্লায় ৩৮ দিন পর শিশু’র লাশ উদ্ধার লুটপাট-দুর্নীতি রুখতে মুক্তিযুদ্ধের পুনর্জাগরণের ডাক কুমিল্লার মুরাদনগরে স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে সাংস্কৃতিক ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত রাজশাহীর তানোরে আলুর জমিতে আছড়ে পড়ল প্রশিক্ষণ বিমান’ পাইলট আহত অপর প্রশিক্ষণার্থী অক্ষত ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের চলমান মাদক বিরোধী অভিযানে রাজধানীতে গ্রেফতার-৪২ বিজিবির চলমান মাদক বিরোধী অভিযানে গোদাগাড়ীতে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা-হেরোইন উদ্ধার যুবক আটক রংপুরে প্রথম ওমেন্স ড্রিমার ক্রিকেট একাডেমি টুর্নামেন্ট’র খেলা শুরু র‌্যাব-৫ এর অভিযানে বিদেশী পিস্তল’ ওয়ান শুটারগান, গুলি ও ম্যাগজিনসহ ০১ অস্ত্র ব্যবসায়ী গ্রেফতার মোহনপুরে পূজা মন্দিরের নিরাপত্তায় কাজ করছে সশস্ত্র আনসার সদস্যরা রংপুর মেট্রোপলিটন ডিবি পুলিশের এএস আই কর্তৃক নবম শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণ!

তানোরের রাজনৈতিক অঙ্গনে ফের আলোচনায় ময়না

সোহানুল হক পারভেজ :

রাজশাহীর তানোরের রাজনৈতিক অঙ্গনে ফের আলোচনায় উঠে এসেছে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি, উপজেলা চেয়ারম্যান ও স্থানীয় সাংসদের প্রতিনিধি তরুণ নেতৃত্ব লুৎফর হায়দার রশিদ ময়না। কলমা ইউপি উপ-নির্বাচনে স্থানীয় সাংসদের দিকনির্দেশনা ও ময়নার নির্বাচনী কৌশল-পরিকল্পনায় আওয়ামী লীগের দুর্বল প্রার্থীর নিরঙ্কুশ বিজয়ে ময়নাকে নিয়ে রাজনৈতিক অঙ্গনে এসব আলোচনার সূত্রপাত হয়েছে। স্থানীয় রাজনৈতিক পর্যবেক্ষক মহলের ভাষ্য, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক শিল্প প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব ওমর ফারুক চৌধূরীর (এমপি) পরবর্তী এবং আগামির অপ্রতিদ্বদ্বি নেতা হিসেবে কেনো ময়নাকে বিবেচনা করা হয় কলমা উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থীর নিরঙ্কুশ বিজয়ের মধ্য দিয়ে তিনি তা আবারো প্রমাণ করেছেন।

এদিকে রেজাউল ইসলামের কর্মী-সমর্থকগণের দাবি তারা আওয়ামী লীগ নয় ময়নার রাজনৈতিক দূরদর্শীতা ও কৌশলের কাছে তরা পরাজিত হয়েছেন। জানা গেছে, চলতি বছরের ২৫ জুলাই বৃহস্প্রতিবার কলমা ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এদিন কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত কলমা ইউপিতে একটানা বিরতিহীনভাবে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়। কলমা ইউপি আওয়ামী লীগের সভাপতি মাইনুল ইসলাম স্বপন (নৌকা) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী রেজাউল ইসলাম (মোটর সাইকেল) প্রতিক নিয়ে প্রতিদ্বদ্বিতা করেন।

মাইনুল ইসলাম স্বপন (নৌকা) প্রতিক নিয়ে ৮ হাজার ৮১০ ভোট এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী রেজাউল ইসলাম (মোটর সাইকেল) প্রতিকে নিয়ে ৪ হাজার ৯৯ ভোট পেয়েছেন। ফলে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী মাইনুল ইসলাম স্বপন ৪ হাজার ৮০০ ভোট বেশি পেয়ে বে-সরকারীভাবে বিজয়ী হয়। স্থানীয়দের অভিমত, মাইনুল ইসলাম স্বজন জনবিচ্ছিন্ন একজন দুর্বল প্রার্থী তার নেই তেমন কোনো কর্মী বাহিনী, নেই তেমন পরিচিতি বা ব্যক্তি ইমেজ তার বিজয় নিয়ে খোদ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীগণ ছিল সন্দিহান। অথচ ময়না তার রাজনৈতিক দূরদর্শীতা ও নির্বাচনী কৌশলে এমন দুর্বল প্রার্থীকেই টেনে তুলে বিজয়ী করেছেন। আর স্বপনের এই বিজয়ের মধ্যে দিয়েই ময়না প্রমাণ করেছেন শুধু রাজনীতির মাঠে থাকলেই নির্বাচন করে বিজয়ী হওয়া যায় না বিজয়ী হতে প্রয়োজন রাজনৈতিক দূরদর্শীতা, কঠোর পরিশ্রম ও নির্বাচনী কৌশল।

স্থানীয় সাংসদের দিকনির্দেশনা ও ময়নার নির্বাচনী কৌশলের কাছে স্বতন্ত্র প্রার্থীর পরাজয় ঘটেছে। স্থানীয় নির্বাচনে কিভাবে ভোটারদের মন জয় ও বিপরীতমূখীদের পক্ষে নিয়ে নির্বাচন করতে হয় ময়না সেটা দেখিয়ে দিলেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে রেজাউল ইসলামের ঘনিষ্ঠ দুই সহচর বলেন, তারা আওয়ামী লীগ নয় ময়নার রাজনৈতিক দূরদর্শীতা ও নির্বাচনী কৌশলের কাছে আমরা পরাজিত হয়েছি। তারা বলেন, নির্বাচনী প্রচারণা শেষ হবার দুদিন আগে পর্যন্ত নির্বাচনী মাঠের নিয়ন্ত্রণ তাদের হাতেই ছিল তারা বিজয়ী হবেন সেটাও প্রায় নিশ্চিত বলেই প্রতিয়মান হয়েছিল। কিন্তু ময়না নির্বাচনী প্রচারণায় অংশগ্রহণের পর রাতারাতি নির্বাচনী মাঠের চিত্র বদলে যায়, তিনি সাধারণ মানুষদের বোঝাতে সক্ষম হন উন্নয়নের সঙ্গে সম্পৃক্ত থেকে চলমান উন্নয়নের ধারা এগিয়ে দিতে সরকার দলীয় প্রার্থীকে বিজয়ী করা ব্যতিত বিকল্প নাই, আর সাধারণ মানুষ তার কথার ওপর আস্থা রেখে রাতারাতি নৌকার পক্ষে চলে যায় এতেই তার পরাজয় ঘটে।

তারা বলেন, ময়না ব্যতিত অন্যকোনো নেতার পক্ষে স্বপনের মতো দুর্বল প্রার্থীকে নিরঙ্কুশভাবে বিজয়ী করা সম্ভব ছিল না, নির্বাচনের মাঠে ময়না রোল মডেল বা আইডল। এসব বিবেচনায় তানোর উপজেলা আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে আগামীর নেতৃত্বে হিসেবে আসছেন লুৎফর হায়দার রশিদ ময়না এটা এখন সময়ের দাবী। তানোর উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সংগ্রামি সভাপতি, উপজেলা চেয়ারম্যান, স্থানীয় সাংসদের প্রতিনিধি, কলমা ইউপির দুই বারের সফল সাবেক চেয়ারম্যান তরুণ-মেধাবী নেতৃত্ব ও তরুণদের আইডল জননেতা লুৎফর হায়দার রশিদ ময়না গণতন্ত্র ও জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠার প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে তিনি থেকেছেন সামনের সারিতে দিয়েছেন সফল নেতৃত্ব, দল ও জনগণের অধিকার রক্ষায় তিনি একজন নিবেদিতপ্রাণ কর্মী, জনবান্ধব, আদর্শিক, পরীক্ষিত ও লড়াকু সৈনিক হিসেবে ধীরে ধীরে গণমানুষের আস্থার প্রতিক ও নেতায় পরিণত হয়ে উঠছেন। রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাবেক সফল শিল্প প্রতিমন্ত্রী ও তিন বারের সাংসদ গণমানুষের নেতা আলহাজ্ব ওমর ফারুক চৌধূরীর পরবর্তী নেতৃত্ব হিসেবে তৃণমূলে আলোচনা ও পচ্ছন্দের শীর্ষে রয়েছেন ময়না।

রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে এমপি ফারুক চৌধূরীর কোনো বিকল্প নাই কেউ সেটা কল্পনাও করেন না, তবে তার অবর্তমান বা পরবর্তী নেতৃত্ব হিসেবে যদি কেউ আওয়ামী লীগকে ঐক্যবদ্ধ করে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারেন সেটা ময়না ব্যতিত আর কারো পক্ষে সম্ভব নয় তৃণমূল ময়নাকেই এমপি ফারুক চৌধূরীর পরবর্তী নেতৃত্ব হিসেবে বিবেচনা করছে তার ওপর আস্থা ও ভরসাও রেখেছেন।

উপজেলা প্রশাসন, রাজনীতি, এলাকার উন্নয়ন ও গ্রাম্যবিরোধ (সালিশ-বিচার) নিস্পত্তিও তিনি দক্ষ হাতে পরিচালনা করে সর্ব মহলের কাছে প্রশংসিত হয়েছেন। রাজশাহী অঞ্চলের সাধারণ মানুষের কাছে এখানো ব্যাপক জনপ্রিয় রয়েছেন এমপি ওমর ফারুক চৌধূরী আবার তার হাতে ধীরে ধীরে গড়ে উঠা নেতা ময়নাও নেতৃত্বের গুনে সাধারণ মানুষের কাছে সমান জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন। দেশের প্রচলিত রাজনৈতিক ধারায় থাকলেও লোভ লালসার স্রোতে তিনি গা ভাসিয়ে দেননি।

তিনি রাজনীতি নিয়ে বাণিজ্যও করেননি, তিনি তৃণমুল নেতা ও কমী-সমথর্কদের সঙ্গে থেকে এখনও চালিয়ে যাচ্ছেন সংগ্রাম। এই সংগ্রাম রাজনীতিতে গুণগত পরিবর্তন সূচনার সংগ্রাম। তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ বা সহযোগী কোনো সংগঠনকেই অর্থ নয় মেধার কাছে জিম্মি রাখতে চান তিনি বর্তমান গণতান্ত্রিক সরকারের উন্নয়ন ধারাকে এগিয়ে নিতে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনকে ঐক্যবদ্ধ করে নিরলস ভাবে কাজ করে চলেছেন। ময়না বলেন, আমি রাজশাহীর প্রতিটি গণতান্ত্রিক আন্দোলনসহ দলের প্রতিটি রাজনৈতিক কর্মসূচিতে সামনে থেকেছি এবং এখনো আছি। ছাত্রলীগ, যুবলীগ হয়ে আজ উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে দেখতে পাচ্ছি এখনও তৃণমুল নেতাকর্মীদের কথা বলার তেমন কোনো জায়গা নেই। সাধারণ নেতাকর্মীরা বড় নেতাদের কাছে পৌচ্ছাতে পারেন না।

সুবিধাভোগীদের ভিড়ে তাদের দাবির কথা, সুখ-দুঃখের কথা বলার সুযোগ পান না। আমি এসব অবহেলিত নেতাকর্মীদের সঙ্গে থেকেছি এখনও আছি আমি এসব মানুষদের নিয়েই ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগকে নিয়ে এগিয়ে যেতে চাই ময়না দলের একজন আদর্শিক ও পরীক্ষিত নেতা। উপজেলা বা জেলা যেখানেই তিনি যান সেখানেই সাধারণ নেতাকর্মীদের মধ্যে মিশে যান। তিনি তাদেরই প্রতিনিধি হিসাবে শোনেন সুখ-দুঃখ ও বঞ্চনার কথা। তার মতে তৃণমুল নেতাকর্মীরাই আওয়ামী লীগের প্রাণ। তারা সুবিধা পেতে দৌড়ে যান না।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ভরসাও তারাই। কিন্তু তাদের সংগঠিত করার মত নেতৃত্বের এতোদিন যে অভাব ছিল এখন তিনি সেটা দুর করতে চান। জানা যায়, মুক্তিযদ্ধের চেতনাপুষ্ট পারিবারিক আবহে বেড়ে উঠেছেন ময়না। স্কুল জীবন থেকেই ছাত্রলীগের রাজনীতিতে যুক্ত হন। রাজনীতিতে সকল অপশক্তির বিরুদ্ধে সোচ্চার একটি নাম ময়না তিনি সব সময় সকল অপশক্তির বিরুদ্ধে সক্রিয় থেকেছেন। তিনি দু’বার বিপুল ভোটের ব্যবধানে কলমা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও একবার উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে দায়িত্ব পালন করছেন।

ইতমধ্যে ময়না তার নেতৃত্বের গুণে গণমানুষের নেতা হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছেন। আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ সহযোগী সকল সংগঠনের নেতাকর্মীদের কাছে সমানভাবে জনপ্রিয়। এসব সংগঠনের নেতাকর্মীরা এখনো তকেই তাদের প্রতিনিধি মনে করেন ও তাদের যে কোন সমস্যায় ছুটে আসেন তাঁর কাছেই। সমস্যার সমাধান পাওয়া না পাওয়া বড় কথা নয়, কিšতু ময়না মনোযোগ সহকারে তাদের কথা শোনেন। ময়না বলেন, তিনি সব সময় নেতাকর্মীদের পাশে থেকেছেন এখনও আছেন। তিনি বলেন, আমি ব্যক্তি স্বার্থের উর্দ্ধে থেকে দীর্ঘসময় রাজনীতিতে দলীয় স্বার্থকেই প্রাধান্য দিয়েছি এখনো দিয়ে যাচ্ছি, তিনি বলেন, তৃণমূল নেতাকর্মীরাই দলের প্রাণ তারা কোনো লোভ-লালসায় দল,নেতা ও নেতৃত্বের সঙ্গে বেঈমানী করে না।

এ প্রসঙ্গে তানোর উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের লীগের সাধারণ সম্পাদক জুবায়ের ইসলাম বলেন, ময়না ভাই সব সময় দলের নেতাকর্মীদের পাশে ছিলেন এখনো আছেন। তিনি বলেন, ময়না ভাই একজন আদর্শিক ও পরীক্ষিত নেতা দলের যে কোন প্রয়োজনে তিনি সব সময় নেতাকর্মীদের পাশে ছিলেন এখানো আছেন। তিনি বলেন, আমাদের প্রাণপ্রিয় নেতা মাননীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব ওমর ফারুক চৌধূরী মহোদয়ের পরবর্তী নেতৃত্ব হিসেবে আমরা তৃণমূলের নেতাকর্মীরা ময়না ভাইকেই বিবেচনা করছি এমনকি পরবর্তী নেতৃত্ব হিসেবে ময়না ভাই পচ্ছন্দের শীর্ষে রয়েছে।

সাইবার নিউজ একাত্তর/ ২৭শে জুলাই, ২০১৯ ইং/হাফিজুল

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে ভাগ করুন

খন্দকার ভবন তানোর থানার মোড় প্রাইমারী স্কুল সংলগ্ন তানোর, রাজশাহী থেকে প্রকাশিত। মোবাইল: ০১৭১৫-২৯৭৫২৪, ০১৭১৬-৮৪৪৪৬৫, ০১৯২০-৪৪০১১২ E-mail: cbnews71@gmail.com Web: www.cybernews71.com Facebook: www.facebook.com/cbnews71 www.twitter.com/CyberNews71 Youtube: //www.youtube.com/cbnews71

© কপিরাইট : খন্দকার মিডিয়া গ্রুপ

 বাল্যবিবাহ রোধ করুন, মাদক মুক্ত সমাজ গড়ুন।

ব্রেকিং নিউজ :