শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ০২:১১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
কুমিল্লায় ৩৮ দিন পর শিশু’র লাশ উদ্ধার লুটপাট-দুর্নীতি রুখতে মুক্তিযুদ্ধের পুনর্জাগরণের ডাক কুমিল্লার মুরাদনগরে স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে সাংস্কৃতিক ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত রাজশাহীর তানোরে আলুর জমিতে আছড়ে পড়ল প্রশিক্ষণ বিমান’ পাইলট আহত অপর প্রশিক্ষণার্থী অক্ষত ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের চলমান মাদক বিরোধী অভিযানে রাজধানীতে গ্রেফতার-৪২ বিজিবির চলমান মাদক বিরোধী অভিযানে গোদাগাড়ীতে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা-হেরোইন উদ্ধার যুবক আটক রংপুরে প্রথম ওমেন্স ড্রিমার ক্রিকেট একাডেমি টুর্নামেন্ট’র খেলা শুরু র‌্যাব-৫ এর অভিযানে বিদেশী পিস্তল’ ওয়ান শুটারগান, গুলি ও ম্যাগজিনসহ ০১ অস্ত্র ব্যবসায়ী গ্রেফতার মোহনপুরে পূজা মন্দিরের নিরাপত্তায় কাজ করছে সশস্ত্র আনসার সদস্যরা রংপুর মেট্রোপলিটন ডিবি পুলিশের এএস আই কর্তৃক নবম শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণ!

বরেন্দ্র ভূমির মাঠ জুড়ে পাকা ধান, শ্রমিক সংকটে বিপাকে কৃষকরা

আল আমিন (রাজশাহী) তানোর থেকে :

তানোর উপজেলাতে বিস্তীর্ন মাঠ জুড়ে পাকা ধান থাকলেও ধান কাটার শ্রমিক সংকটে কৃষকরা বিপাকে পড়েছেন। কৃষকরা নিরুপায় হয়ে শ্রমিদের বাড়তি টাকা দিয়েই ধান কাটাচ্ছেন।

এদিকে ধানের দাম কম থাকায় শ্রমিকের জন্য এই বাড়তি ব্যয়ের কারনে আরও বেশি লোকসানের আশঙ্কা করছেন কৃষকরা। উপজেলার তানোর গ্রামের কৃষক আহসান হাবিব (৫০) বলেন, আমি ৫ বিঘা জমিতে বোরো ধান লাগিয়েছি। প্রতি বিঘাতে ২০-২২ মন করে ধানের ফলন হবে বলে আশা করছি। আশানুরূপ ফলন হলে আমি মোট ১০০-১১০ মন ধান পাব, কিন্তু শ্রমিক না পাওয়াই ৩৫০/- থেকে ৪৫০/- টাকা করে শ্রমিক দিয়ে ধান কাটাচ্ছি। ৫ বিঘা জমির ধান কাটতে ৩০ জন শ্রমিকের মজুরি দিতে হবে ১০,৫০০/- থেকে ১১,৫০০/- টাকা মতো। এছাড়াও ধান রোপন থেকে ধান পাকা পর্যন্ত আমার খরচ হয় বিঘা প্রতি ৬-৮ হাজার টাকা, ধান ব্যাপারীদের  কাছে এখন দাম ৫০০/- থেকে সর্বোচ্চ ৫৫০/- টাকা মন। তাহলে এখনকার ১১০ মন ধানের দাম পাব প্রায় ৬০ হাজার ৫শত টাকা। এই মুহুর্তে ৫ বিঘা জমি চাষ করে আমার লোকসান গুনতে হবে প্রায় ২০ হাজার টাকা।

উপজেলার লালপুর এলাকার কৃষক মোঃ সাইদুল ইসলাম বলেন, এ বছর তিনি ৮ বিঘা জমিতে ইরি, বোরো ধান চাষ করেছেন। শ্রমিক না পাওয়ায় এখনো জমির ধান কেটে ঘরে তুলতে পারছিনা। কলমা এলাকার কৃষক  মজিবর রহমান বলেন, এবার আবহাওয়া ভাল থাকায় ধানের ফলন ভালো তবে, তিব্র রোদ ও গরমে জমির ধান যেন পুড়ে খই হওয়ার উপক্রম অপর দিকে শ্রমিক না পাওযায়  অনেক বেশি টাকা দিয়ে ধান কাটাতে হচ্ছে, এই বাড়তি খরচের কারণে আমাদের আরো বেশি লোকসানে পড়তে হবে। উপজেলার বিভিন্ন এলাকার কৃষকের সাথে কথা বলে জানা যায়, শ্রমিকের অভাবে বোরো ধান কাটা নিয়ে তারা পড়েছেন বিপাকে। ১ বেলা একজন শ্রমিকের মুজরি দিতে হচ্ছে এলাকা ভেদে ৩৫০/- থেকে ৫৫০/- টাকা পর্যন্ত যা প্রায় এক মন ধানের মূল্যের কাছাকাছি।

শ্রমিক সংকট তীব্র হওয়ায় এমন মুজরি দিতে বাধ্য হচ্ছেন কৃষকরা, তানোর উপজেলা এলাকায় বেশি শ্রমিক পাওয়া যায় না, তাই চাঁপাই, গোদাগাড়ী, মোহনপুর সহ আশপাশের বিভিন্ন উপজেলা থেকে শ্রমিক এসে কাজ করছেন।

এলাকার আরো কৃষকদের সাথে কথা বললে তারা বলেন, প্রতি শ্রমিককে যদি দিনে ৫০০/- টাকা মজুরি দিতে হয় তাহলে কৃষকদের কি থাকবে? ধানের দাম ৫০০ থেকে ৫৫০ টাকা মন, কোন ভাবেই যেন কৃষকের হিসাব মিলেনা।

এই দিকে জাতীয় কৃষি পদক প্রাপ্ত আদর্শ কৃষক নুর মোহাম্মদ বলেন, এই বারের বিষয়টি একটু ভিন্ন রকমই মনে হচ্ছে। আমরা প্রচন্ডভাবে শ্রমিক সংকটে পড়েছি বাড়তি টাকা দিয়েও শ্রমিক ঠিক মত পাওয়া যাচ্ছে না, মাঠে রোদ ঝলমলে আকাশের নিচে পড়ে আছে পাকা সোনালী ফসল তবে বৃষ্টিপাত হলে চরম বিপাকে পড়তে হবে আমাদের। অপর দিকে গোদের উপর বিষফোড়া ধান ফলাতে বিঘা প্রতি যে খরচ হয়েছে  তা আদৌ বর্তমান বাজার মূল্যে ধান বিক্রি করে উঠবে কি না সন্দেহে আছি। সামনে রমজান মাস প্রতিটা দ্রব্যমূল্যের দাম বাড়ছে অথচ কৃষকের ধানের দাম যেন কমছেই।

আদর্শ কৃষক নুর মোহাম্মদ আরো বলেন, আমি বাংলার লক্ষ কোটি কৃষকের পক্ষ থেকে মাননীয়  মাতা প্রধানমন্ত্রী ও বাংলাদেশের কৃষিমন্ত্রীকে জোর আবেদন জানাচ্ছি, তিনারা যেন আমাদের কৃষকদের ধানের মূল্য বৃদ্ধি করেন। পাশাপাশি তিনি এও বলেন, ধান নিয়ে যেন কোন কালোবাজারী না হয় সে দিকেও দৃষ্টি রাখবেন, কারন কৃষকরা কষ্ট করে মাথার ঘাম পায়ে ফেলে ফসল ফলায় অথচ দেখা যায় বিক্রয়ের সময় সুবিধাভোগী তৃত্বীয় পক্ষ অধিক লাভবান হন।

এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ শফিকুল ইসলাম জানান, চলতি বোরো মৌসুমে দুইটি পৌরসভাসহ উপজেলার সাতটি ইউনিয়নের ৮ হাজার ২৫৫ হেক্টর জমিতে বোরো চাষাবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। বর্তমান আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় বোরো ধানের সার্বিক অবস্থা ভাল রয়েছে। তাই এ বছরও ধানের ভালো ফলন হবে, উপজেলার প্রায় সবদিকেই আনুমানিক ৫% থেকে ১০% বোরো ধান কাটা হয়েছে। তবে শ্রমিক সংকট থাকায় মজুরি বেশির কারনে কৃষকরা চিন্তিত বলেও জানা যায়।

সাইবার ‍নিউজ একাত্তর/ ৩০শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং/হাফিজুল

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে ভাগ করুন

খন্দকার ভবন তানোর থানার মোড় প্রাইমারী স্কুল সংলগ্ন তানোর, রাজশাহী থেকে প্রকাশিত। মোবাইল: ০১৭১৫-২৯৭৫২৪, ০১৭১৬-৮৪৪৪৬৫, ০১৯২০-৪৪০১১২ E-mail: cbnews71@gmail.com Web: www.cybernews71.com Facebook: www.facebook.com/cbnews71 www.twitter.com/CyberNews71 Youtube: //www.youtube.com/cbnews71

© কপিরাইট : খন্দকার মিডিয়া গ্রুপ

 বাল্যবিবাহ রোধ করুন, মাদক মুক্ত সমাজ গড়ুন।

ব্রেকিং নিউজ :