বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ১০:২৪ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
কুমিল্লায় ৩৮ দিন পর শিশু’র লাশ উদ্ধার লুটপাট-দুর্নীতি রুখতে মুক্তিযুদ্ধের পুনর্জাগরণের ডাক কুমিল্লার মুরাদনগরে স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে সাংস্কৃতিক ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত রাজশাহীর তানোরে আলুর জমিতে আছড়ে পড়ল প্রশিক্ষণ বিমান’ পাইলট আহত অপর প্রশিক্ষণার্থী অক্ষত ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের চলমান মাদক বিরোধী অভিযানে রাজধানীতে গ্রেফতার-৪২ বিজিবির চলমান মাদক বিরোধী অভিযানে গোদাগাড়ীতে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা-হেরোইন উদ্ধার যুবক আটক রংপুরে প্রথম ওমেন্স ড্রিমার ক্রিকেট একাডেমি টুর্নামেন্ট’র খেলা শুরু র‌্যাব-৫ এর অভিযানে বিদেশী পিস্তল’ ওয়ান শুটারগান, গুলি ও ম্যাগজিনসহ ০১ অস্ত্র ব্যবসায়ী গ্রেফতার মোহনপুরে পূজা মন্দিরের নিরাপত্তায় কাজ করছে সশস্ত্র আনসার সদস্যরা রংপুর মেট্রোপলিটন ডিবি পুলিশের এএস আই কর্তৃক নবম শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণ!

ভূয়া পরীক্ষার্থী দিয়ে জেডিসি পরীক্ষা, মাদ্রাসা সুপারের দণ্ড

সাইবার নিউজ একাত্তর অনলাইন ডেস্ক :

দিনাজপুরের বীরগঞ্জে ভূয়া পরীক্ষার্থী দিয়ে জেডিসি পরীক্ষা দেয়ার অভিযোগে মো. মতিয়ার রহমান (৩৮) নামে এক মাদ্রাসা সুপারের ১ বছরের কারাদণ্ড ও ১ হাজার টাকা জরিমানা প্রদান করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

মো. মতিয়ার রহমান উপজেলার মরিচা ইউনিয়নের নাগরী সাগরী গ্রামের মৃত খেরাজ উদ্দিনের ছেলে এবং শতগ্রাম ইউনিয়নের করিমপুর পুলহাট দাখিল মাদ্রাসার সুপার।

মঙ্গলবার বিকাল ৪টায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইয়ামিন হোসেন ভ্রাম্যমাণ আদালতে এ রায় প্রদান করেন।

বীরগঞ্জ থানার এসআই মো. নুরুল হক নাগরগঞ্জ দাখিল মাদ্রাসার নবম শ্রেণির তিন শিক্ষার্থীকে দিয়ে করিমপুর পুলহাট দাখিল মাদ্রাসার সুপার জেডিসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করান। বিষয়টি জানতে পেরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ইয়ামিন হোসেন বীরগঞ্জ ফাজিল মাদ্রাসার পরীক্ষা কেন্দ্রে অভিযান চালিয়ে তিন শিক্ষার্থীকে আটক করেন

পরে সুপারকে ফোনে ডেকে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সুপার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন। এ অভিযোগে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক মো. মতিয়ার রহমানকে জেল ও জরিমানার রায় দেন।

বীরগঞ্জ ফাজিল মাদ্রাসা পরীক্ষা কেন্দ্রের কেন্দ্র সচিব মো. আবুল কাশেম জানান, মঙ্গলবার সকালে আরবি প্রথমপত্র পরীক্ষা চলাকালে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ইয়ামিন হোসেন কেন্দ্র পরিদর্শনে আসেন। তিনি করিমপুর পুলহাট দাখিল মাদ্রাসা হতে জেডিসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী তিন শিক্ষার্থী মো. সাব্বির হোসেন (রোল- ২৪৪৯১৯), মো. রিপন আলী (রোল- ২৪৪৯১৮), মো. হোসাইন ইসলামকে (রোল- ২৪৪৯১৭) জিজ্ঞাসাবাদ করলে তারা সঠিক উত্তর দিতে ব্যর্থ হয়।

এতে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সন্দেহ হলে তিনি ওই মাদ্রাসার সুপারকে ডেকে এনে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে নিয়ে যান। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নির্দেশে ভূয়া পরীক্ষার্থী হিসেবে ওই তিন শিক্ষার্থীর পরীক্ষা বাতিল করে দেয়া হয়।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ইয়ামিন হোসেন জানান, পাসের হার বাড়ানোর লক্ষ্যে অন্য মাদ্রাসার শিক্ষার্থী দিয়ে পরীক্ষা দেয়ার অভিযোগে ওই সুপারকে দণ্ড দেয়া হয়।

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে ভাগ করুন

খন্দকার ভবন তানোর থানার মোড় প্রাইমারী স্কুল সংলগ্ন তানোর, রাজশাহী থেকে প্রকাশিত। মোবাইল: ০১৭১৫-২৯৭৫২৪, ০১৭১৬-৮৪৪৪৬৫, ০১৯২০-৪৪০১১২ E-mail: cbnews71@gmail.com Web: www.cybernews71.com Facebook: www.facebook.com/cbnews71 www.twitter.com/CyberNews71 Youtube: //www.youtube.com/cbnews71

© কপিরাইট : খন্দকার মিডিয়া গ্রুপ

 বাল্যবিবাহ রোধ করুন, মাদক মুক্ত সমাজ গড়ুন।

ব্রেকিং নিউজ :