শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ০২:৫৯ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
কুমিল্লায় ৩৮ দিন পর শিশু’র লাশ উদ্ধার লুটপাট-দুর্নীতি রুখতে মুক্তিযুদ্ধের পুনর্জাগরণের ডাক কুমিল্লার মুরাদনগরে স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে সাংস্কৃতিক ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত রাজশাহীর তানোরে আলুর জমিতে আছড়ে পড়ল প্রশিক্ষণ বিমান’ পাইলট আহত অপর প্রশিক্ষণার্থী অক্ষত ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের চলমান মাদক বিরোধী অভিযানে রাজধানীতে গ্রেফতার-৪২ বিজিবির চলমান মাদক বিরোধী অভিযানে গোদাগাড়ীতে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা-হেরোইন উদ্ধার যুবক আটক রংপুরে প্রথম ওমেন্স ড্রিমার ক্রিকেট একাডেমি টুর্নামেন্ট’র খেলা শুরু র‌্যাব-৫ এর অভিযানে বিদেশী পিস্তল’ ওয়ান শুটারগান, গুলি ও ম্যাগজিনসহ ০১ অস্ত্র ব্যবসায়ী গ্রেফতার মোহনপুরে পূজা মন্দিরের নিরাপত্তায় কাজ করছে সশস্ত্র আনসার সদস্যরা রংপুর মেট্রোপলিটন ডিবি পুলিশের এএস আই কর্তৃক নবম শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণ!

মামলা দেখিয়ে, মোহনপুরে ভূঁইফোর মৎস্যজীবি সমবায় সমিতির নামে ৯ বছর ধরে সরকারি পুকুর দখলের অভিযোগ, সরকার হারাচ্ছে কোটি কোটি টাকার রাজস্ব

ইমরান হোসাইন, নিজস্ব প্রতিবেদক :

রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলায় এক ভূঁইফোর মৎস্যজীবী সমবায় সমিতির নামে ৯ বছর ধরে সরকারি জলমহাল/পুকুর জবর-দখল করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে করে সরকার ওই জলমহাল/পুকুর থেকে প্রতিবছর কোটি কোটি টাকার রাজস্ব হারাচ্ছে।

এদিকে, ওই ভূঁইফোর সমিতির সদস্যরা সু-কৌশলে পুরো উপজেলার প্রায় ৩৫০টি সরকারি জলমহাল/পুকুর নিজেদের কব্জায় চিরস্থায়ী রাখতে সরকারের বিরুদ্ধে একাধিক মিথ্যা মামলা করেছেন। আবার তুলেও নিয়েছেন। কিন্তু ওইসব মিথ্যা মামলার সুযোগ নিয়ে সুবিধাভোগি সমিতির সদস্যরা গোপনে নিজেরা ও তাদের ঘনিষ্টজনদের দিয়ে পেশিশক্তির বলে পুকুর দখলকারীদের কাছ থেকে ইউএনওর নামে রাজস্ব আদায় করে আত্মসাৎ করছেন। ফলে ৯ বছরে প্রায় ১০ কোটি টাকার রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হয়ে আসছেন সরকার বলে জানান ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার আসলাম।

মামলার কাগজপত্র ঘেঁটে দেখা গেছে, ২০১১ সালে রাজশাহী জেলার মোহনপুর উপজেলার ‘মহব্বতপুর শতফুল মৎস্যজীবি সমবায় সমিতি লিঃ’ এর পক্ষে মহব্বতপুর গ্রামের উপজেলার ধূরইল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন বাদি হয়ে রাজশাহীর মোহনপুর সিনিয়র সহকারি জজ আদালতে মামলা করেন। মামলাটি বেশ কয়েক বছর চলার পর বাদি পক্ষ পরাজিত হয়।

তিনি মামলায় পরাজিত হবার পর কু-কৌশলে একই সমিতির অন্যদুই সদস্যকে বাদি করে গত ২০১৭ সালের ২৮ মার্চ একই আদালতে আবার মিথ্যা মামলা দাখিল করান। যার মামলা নম্বর ১৯/১৭ অঃপ্রঃ। এই মামলার বাদি বুলবুল হোসেন বলেন, তারা প্রকৃত মৎস্যজীবী হওয়া সত্বেও মৎস্য কার্ড না পাওয়ার কারণে সমিতি করতে পারেন নাই। অথচ তারা মামলা করার অনেক পূর্বেই মৎস্য কার্ড সংগ্রহ করে ‘মহব্বতপুর শতফুল মৎস্যজীবি সমবায় সমিতি লিঃ’ নামে সমিতি গঠন করেন। ওই সমিতির তালিকাভুক্ত ২০ নম্বর সদস্য বুলবুল। যার রেজি:নং: ২১৪, তারিখ ২০১০ সালের ১২ মে।

এই মামলায় বিবাদী দেখানো হয়, মোহনপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা জলমহাল ব্যবস্থাপনা বন্দোবস্ত কমিটির সভাপতিকে। এছাড়াও মামলায় আরেক বিবাদী দেখানো হয় উপজেলা জলমহাল ব্যবস্থাপনা ও বন্দোবস্ত কমিটির সদস্য সচিব মোহনপুর উপজেলার সহকারি কমিশনার (ভূমি)কে।

মামলার প্রেক্ষিতে সংশ্লিষ্ট আদালত বিবাদীদ্বয়কে জবাব দাখিলের জন্য নির্দেশ দেন। আদালতের নির্দেশ মোতাবেক মোহনপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা জলমহাল ব্যবস্থাপনা বন্দোবস্ত কমিটির সভাপতি আলমগীর কবির গত ২০১৭ সালের মে মাসের ১৩ তারিখে জবাবের প্রতিবেদন দাখিল করেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, মামলার বাদী বুলবুল হোসেন দিং প্রকৃত তথ্য গোপন করে আদালতে মিথ্যা মামলা আনয়ণ করেছেন। বাদীপক্ষ সত্যিকার ভাবে ‘মহব্বতপুর শতফুল মৎস্যজীবি সমবায় সমিতি লিঃ’ এর সক্রিয় সদস্য এবং তৎকালিন চলমান ইজারা প্রক্রিয়ায় তারা অংশগ্রহন করে ০.৯৪ একর পুকুর লিজ নেওয়ার জন্য আবেদন করেছিলেন মর্মে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়।

তৎকালিন সময়ের উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা জলমহাল ব্যবস্থাপনা বন্দোবস্ত কমিটির সভাপতি আলমগীর কবির মহোদয়, আদালতে এহেন জবাবের পরিপ্রেক্ষিতে ধুন্ধর ও চর্তুবাজ মামলার বাদি বুলবুল হোসেন দিং পূনরায় মামলা দাখিল করবে বলে অঙ্গিকার করে মামলা প্রত্যাহার করে নেন। কিন্তু আজও পূনরায় মামলা রুজু করা হয়নি। উক্ত মিথ্যা মামলার কারণে সরকার কোটি কোটি টাকার রাজস্ব হারায়।

সর্বশেষ সরকারি জলমহাল ব্যবস্থাপনা নীতিতে বলা হয়, কোন সমিতি জলমহাল এর বিরুদ্ধে মামলা করে পরাজিত হলে পরপর ৩ বছর ইজারা প্রক্রিয়ায় আবেদন করতে পারবে না। কিন্তু প্রভাব খাটিয়ে সরকারি নীতিমালা ও চলতি ২০১৯ সালের ০৯ মার্চ তারিখের প্রকাশিত ইজারা বিজ্ঞপ্তির শর্তাবলী¬েক বৃদ্ধা আঙ্গুল দেখিয়ে ‘মহব্বতপুর শতফুল মৎস্যজীবি সমবায় সমিতি লিঃ’ ইজারায় অংশ গ্রহন করেছে। কিন্তু এই অনিয়ম দেখার যেন কেউ নেই?

এব্যাপারে মোহনপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা জলমহাল ব্যবস্থাপনা বন্দোবস্ত কমিটির চলতি দায়িত্বরত সভাপতি সানওয়ার হোসেন বলেন, আদালত থেকে মামলা প্রত্যাহার হওয়ায় উপজেলার সকল সরকারি খাস পুকুর ইজারা দেবার জন্য টেন্ডার আহবান করা হয়েছে। প্রায় ৪৮টি আবেদন পাওয়া গেছে। যদি ‘মহব্বতপুর শতফুল মৎস্যজীবি সমবায় সমিতি লিঃ এর সদস্যরা আবেদন করে থাকে তাহলে কমিটি এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেবে বলে জানান ইউএনও।

সাইবার নিউজ একাত্তর /  ০৩ অক্টোবর ২০১৯ ইং আব্দুর রাজ্জাক (রাজু)

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে ভাগ করুন

খন্দকার ভবন তানোর থানার মোড় প্রাইমারী স্কুল সংলগ্ন তানোর, রাজশাহী থেকে প্রকাশিত। মোবাইল: ০১৭১৫-২৯৭৫২৪, ০১৭১৬-৮৪৪৪৬৫, ০১৯২০-৪৪০১১২ E-mail: cbnews71@gmail.com Web: www.cybernews71.com Facebook: www.facebook.com/cbnews71 www.twitter.com/CyberNews71 Youtube: //www.youtube.com/cbnews71

© কপিরাইট : খন্দকার মিডিয়া গ্রুপ

 বাল্যবিবাহ রোধ করুন, মাদক মুক্ত সমাজ গড়ুন।

ব্রেকিং নিউজ :