বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ১০:০৬ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
কুমিল্লায় ৩৮ দিন পর শিশু’র লাশ উদ্ধার লুটপাট-দুর্নীতি রুখতে মুক্তিযুদ্ধের পুনর্জাগরণের ডাক কুমিল্লার মুরাদনগরে স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে সাংস্কৃতিক ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত রাজশাহীর তানোরে আলুর জমিতে আছড়ে পড়ল প্রশিক্ষণ বিমান’ পাইলট আহত অপর প্রশিক্ষণার্থী অক্ষত ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের চলমান মাদক বিরোধী অভিযানে রাজধানীতে গ্রেফতার-৪২ বিজিবির চলমান মাদক বিরোধী অভিযানে গোদাগাড়ীতে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা-হেরোইন উদ্ধার যুবক আটক রংপুরে প্রথম ওমেন্স ড্রিমার ক্রিকেট একাডেমি টুর্নামেন্ট’র খেলা শুরু র‌্যাব-৫ এর অভিযানে বিদেশী পিস্তল’ ওয়ান শুটারগান, গুলি ও ম্যাগজিনসহ ০১ অস্ত্র ব্যবসায়ী গ্রেফতার মোহনপুরে পূজা মন্দিরের নিরাপত্তায় কাজ করছে সশস্ত্র আনসার সদস্যরা রংপুর মেট্রোপলিটন ডিবি পুলিশের এএস আই কর্তৃক নবম শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণ!

রাশেল হত্যার আসামীদের বাঁচাতে মরিয়া কে এই আশরাফ বাবু

নিজস্ব প্রতিনিধি :

রাজশাহীতে পশ্চিমাঞ্চল রেলের টেন্ডার নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষে যুবলীগ কর্মী সানোয়ার হোসেন রাশেল (৩০) নিহতের ঘটনায় আটজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ । হত্যাকান্ডের দিন থেকে গতকাল শুক্রবার প্রর্যন্ত তাদের আটক করা হয়। তাঁরা হলেন নগরীর শিরোইল কলোনি এলাকার বুলবুল হোসেনের ছেলে রাব্বি (২৫), জয়নালের ছেলে মো. বাপ্পি (১৯), নূর মোহাম্মদ সরদারের ছেলে মো. শাহিন (২৪), মানিকের ছেলে মো. শুভ (২১), বাবু ইসলামের ছেলে চঞ্চল (১৯), জালাল উদ্দিনের ছেলে কালাম উদ্দিন (১৯), আবুল কালাম চৌধুরীর ছেলে মোজাহিদুল ইসলাম অভ্র (১৯) ও শিরোইল স্টেশনপাড়া এলাকায় কালু শেখের ছেলে উজ্জল আলী নয়ন (৩০) ।

এদিকে টেন্ডার নিয়ন্ত্রণকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে সানোয়ার হোসেন রাশেল নিহতের ঘটনায়, রাজশাহীর টেন্ডারবাজ ও মদদদাতাদের সতর্ক করেছেন রাজশাহী-৬ আসনের সংসদ সদস্য পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। গত বৃহস্পতিবার দুপুরে তার নিজের ফেসবুকে পেজে স্ট্যাটাস দিয়ে সতর্ক করেন তিনি। দুপুর ১২টা ২৩ মিনিটে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম তার ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন। তাতে তিনি লিখেছেন, ‘রাজশাহীতে টেন্ডারবাজি বন্ধ হতে হবে। আর যারা মদত দেন তাদেরকে মদত দেয়া বন্ধ করতে হবে, অনতিবিলম্বে। নেত্রীর বার্তা যদি আপনারা বুঝে না থাকেন তাহলে তার পরিণতি আপনাদেরকেই ভোগ করতে হবে।’ এমন হুশিয়ারীর পরেও রাজশাহী মহানগর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আশরাফ বাবু শিরোইল কলোনি এলাকার নূর মোহাম্মদ সরদারের ছেলে মো. শাহিন (২৪)কে নির্দোষ দাবি করে ফেসবুকে স্টাটাস দিয়েছে। শুধু শাহিনকে নির্দোষ দাবি নয় রাশেল হত্যার খুনিদের বাঁচাতে আশরাফ বাবু তার বিরোধীদের এই মামলায় জড়ানোর অপচেষ্টা করছে বলেও জানা গেছে। আর এই আশরাফ বাবুকে পেছন থেকে সাপর্ট দিচ্ছেন রাসিকের এক কাউন্সিলর।

এদিকে আশরাফ বাবু রাশেল হত্যাকান্ডে আটক শাহিনকে নির্দোষ দাবি করে ফেসবুকে স্টাটাস দেয়ার পর থেকে রাজশাহী জুড়ে এখন আলোচনার ঝড় বয়ছে । নগরীর প্রতিটি মোড়ের চায়ের দোকান থেকে শুরু করে বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় চলছে আশরাফ বাবুর এমন স্টেটাসের তিব্র সমালচনার ঝড়। কি সার্থে রাশেলের খুনিদের বাঁচাতে চাচ্ছে এই আশরাফ বাবু ? আর কেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের (রাসিক) এক কাউন্সিলর ও প্রভাবশালী আওয়ামী লীগ নেতাদের ফাঁসাতে চাচ্ছে তিনি ! এ নিয়ে চলছে আলোচনা ও সমালোচনা। অনেকে বলছেন রেলে তাঁর একচ্ছত্র প্রভাব খাটাতে আশরাফ বাবু বোয়ালিয়া থানা আওয়ামী লীগের (পূর্ব) সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন রাজার ভাই যুবলীগকর্মী সানোয়ার হোসেন রাশেল হত্যায় রাসিকের ২১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর নিযামুল আযীম নিজাম ও তাঁর দূর সম্পর্কের খালাতো ভাই সাঈদ মাহমুদ হিমেলসহ অন্যন্ন্যদের ফাঁসানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

আবার কেউ বলছেন, আশরাফ বাবু রাসেল হত্যায় আটক শাহিনকে নির্দোষ দাবি করে ফেসবুকে স্টাটাস দিয়েছে সেই নয়নের সাথে আশরাফ বাবুর ঘনিষ্ঠতা রয়েছে। এতেই বোঝাঁ যায় কেন রাশেল হত্যার আসামীদের বাঁচাতে মরিয়া হয়েছেন আশরাফ বাবু।

আশরাফ বাবুর খোজ নিয়ে জানা যায়, আশরাফ বাবু রাজশাহী মহানগর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পোস্ট এ আছে। কিন্তু তিনি অনেক আগে নিজেই পত্রিকায় দিয়েছিলো সে মহানগর যুবলীগ থেকে পদত্যাগ করছে। রাজশাহী নগরের শিরোইল কলোনি এলাকার বাসিন্দা হওয়াতে দলের প্রভাব খাটিয়ে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে সখ্য গড়ে তুলে অথবা প্রভাব খাটিয়ে এলটিএম এ কাজ করেছে । ইজিপি এবং ওটিএম এ এ প্রর্যন্ত একটা টেন্ডারও পায়নি/করেনি বা যোগ্যতা অর্জন না করেও গত এক দশকে এলটিএমএর মাধ্যমে শত কোটি টাকার কাজ বাগিয়েছেন, যে কাজগুলো নামকাওয়াস্তে করেই তিনি বিল উত্তোলন করেছেন। আবার কখনো কখনো আগেই বিল তুলে নিয়েছেন, পরে নামকাওয়াস্তে কিছু কাজ করেছেন। আর তার এ সকল কর্মকান্ডে সহযোগীতা/পাটনার হিসেবে ছিলেন রাসিকের বর্তমান এক কাউন্সিলর। কিছুদিন আগেও তারাই মূলত রেলের ঠিকাদারি নিয়ন্ত্রণ করতেন। একসময় তারা দুজনেই মহানগর যুবলীগের সভাপতি রমজান আলীর ঘনিষ্ঠ ছিলেন। পরে ঠিকাদারি নিয়ে তাঁদের সম্পর্কের অবনতি হলে আশরাফ বাবুদয় একক ভাবে রেলের ঠিকাদারদের হর্তা কর্তা বনে জান। এখনো রেলে তাদের একচ্ছত্র প্রভাব রাখতেই রাজশাহী সিটি করপোরেশনের (রাসিক) এক কাউন্সিলর ও প্রভাবশালী আওয়ামী লীগ নেতাদের ফাঁসাতে চাচ্ছেন বলে নিশ্চিত করেছেন একাধিক কর্মকর্তারা।

শিরোইল কলোনি এলাকার স্থানীয়রা জানান, মহানগর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আশরাফ বাবু নগরীর ডাবতোলা হাজরাপুকুর এলাকায় ছোট্ট একটি ওষুধের দোকানের ব্যবসায়ী ছিলেন। এর পাশাপাশি তিনি সাইকেল নিয়ে দোকানে দোকানে প্যারাসিটামল ও স্যালাইন বিক্রি করতেন। নগরীর শিরোইল এলাকায় একটি টিনশেড বাড়িতে ভাড়া থাকতেন তিনি। ২০১২ সালের দিকে আশরাফ রেলওয়ের বড় ঠিকাদার শহিদের মাধ্যমে রেলভবনে ঢোকেন মাস্তানি করতে। স্থানীয় বাসিন্দা হিসেবে প্রভাব খাটিয়ে শহিদকে কাজ পাইয়ে দিতে তিনি রেলভবনে যাতায়াত শুরু করেন। পরে নিজেই রেলওয়ের কর্মকর্তাদের ভয়ভীতি দেখিয়ে বিনা দরপত্রে কাজ বাগিয়ে নিতে শুরু করেন। নিজের ফেসবুক পেজে রেলওয়ের প্রথম শ্রেণির ঠিকাদার হিসেবে নিজের পরিচয় উল্লেখ করেছেন তিনি।

উল্লেখ্য, রাশেল নিহতের ঘটনায় বুধবার রাতে চন্দ্রিমা থানায় রাসেল ভাই মনোয়ার হোসেন রনি বাদি হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় ১৭ জনের নাম উল্লেখ করে ২৫ জনকে আসামি করা হয়।

সাইবার নিউজ একাত্তর / ১৮ই নভেম্বর ২০১৯ইং আব্দুর রাজ্জাক (রাজু)

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে ভাগ করুন

খন্দকার ভবন তানোর থানার মোড় প্রাইমারী স্কুল সংলগ্ন তানোর, রাজশাহী থেকে প্রকাশিত। মোবাইল: ০১৭১৫-২৯৭৫২৪, ০১৭১৬-৮৪৪৪৬৫, ০১৯২০-৪৪০১১২ E-mail: cbnews71@gmail.com Web: www.cybernews71.com Facebook: www.facebook.com/cbnews71 www.twitter.com/CyberNews71 Youtube: //www.youtube.com/cbnews71

© কপিরাইট : খন্দকার মিডিয়া গ্রুপ

 বাল্যবিবাহ রোধ করুন, মাদক মুক্ত সমাজ গড়ুন।

ব্রেকিং নিউজ :