শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২, ১১:২৯ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
কুমিল্লায় ৩৮ দিন পর শিশু’র লাশ উদ্ধার লুটপাট-দুর্নীতি রুখতে মুক্তিযুদ্ধের পুনর্জাগরণের ডাক কুমিল্লার মুরাদনগরে স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে সাংস্কৃতিক ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত রাজশাহীর তানোরে আলুর জমিতে আছড়ে পড়ল প্রশিক্ষণ বিমান’ পাইলট আহত অপর প্রশিক্ষণার্থী অক্ষত ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের চলমান মাদক বিরোধী অভিযানে রাজধানীতে গ্রেফতার-৪২ বিজিবির চলমান মাদক বিরোধী অভিযানে গোদাগাড়ীতে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা-হেরোইন উদ্ধার যুবক আটক রংপুরে প্রথম ওমেন্স ড্রিমার ক্রিকেট একাডেমি টুর্নামেন্ট’র খেলা শুরু র‌্যাব-৫ এর অভিযানে বিদেশী পিস্তল’ ওয়ান শুটারগান, গুলি ও ম্যাগজিনসহ ০১ অস্ত্র ব্যবসায়ী গ্রেফতার মোহনপুরে পূজা মন্দিরের নিরাপত্তায় কাজ করছে সশস্ত্র আনসার সদস্যরা রংপুর মেট্রোপলিটন ডিবি পুলিশের এএস আই কর্তৃক নবম শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণ!

৮৮ বন্যায় নদীভাঙ্গনে বিলীন পরিবারটির বসবাস খোলা আকাশের নিচে গাছতলায়

যৌন নির্যাতনের হাত থেকে বাঁচতে চায় তামান্না

রুবেল ইসলাম, (রংপুর) মিঠাপুকুর থেকে :

যে দেশের মাটিতে দশ লাখ রোহিঙ্গা শরণার্থী আশ্রয় পায় আর আশ্রয় দেওয়ার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা পান “মাদার অফ হিউমিনিটি” উপাধি, সে দেশের মাটিতে ১০ শতক জমিতে আশ্রয় পাচ্ছেন না ৮৮ বন্যায় নদীভাঙ্গনে বিলীন ভূমিহীন পরিবার।

রবিবার ১৬ ই জুন  সকালে রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার ১১নং বড় বালা ইউনিয়নের ছড়ান বালুয়া বাজারে উচ্ছেদ অভিযানের পর খোলা আকাশের নিচে গাছতলায় বসবাস করছেন ভূমিহীন দিনমজুর সাহাদুল ইসলামের দারিদ্র পরিবার।

সরেজমিনে স্থানীয় এলাকাবাসীর মাধ্যমে জানা যায়- উপজেলার বড়বালা ইউনিয়নের হাছিয়া ছড়ান মৌজার ছড়ান বাজার সংলগ্ন ৩০ বছর ধরে সরকারী খাস জমিতে বসবাস করে আসছিলেন আটপুনিয়া গ্রামের মৃত ফজলার রহমান ছেলে সাহাদুল ইসলাম। দীর্ঘদিন সরকারী বিভিন্ন দপ্তরে বসবাসকৃত জায়গাটুকু বন্ধবস্ত করার জন্য আবেদন করলেও তা পাননি। অপর দিকে তার বসবাসকৃত জায়গাটুকু একই মৌজার পাশের বাড়ি সৈয়দ আলী নামে প্রভাবশালী ব্যক্তি বন্দবস্ত করার আবেদন করলে তিনি পান। বন্ধবস্ত গ্রহণকারী সৈয়দ আলী সাহাদুল ইসলামকে উচ্ছেদকল্পে রংপুর জেলা প্রশাসকের দপ্তরে মামলা করে রায় পান। এই রায়ের আদেশে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রোকসানা বেগম পুলিশ ফোর্সের সহায়তায় বুলডেজার ব্যবহার করে সাহাদুল ইসলামের টিনশেড ইটের ঘর, একটি টিনের ঘর, রান্নাঘর, গোয়ালঘর, মালামালসহ ভেঙ্গে দেন। এ ঘটনায় সাহাদুল ইসলামের মা, নাবালক মেয়ে তামান্না ও স্ত্রী নিয়ে খোলা আকাশের নিচে গাছ তলায় এক সপ্তাহ ধরে জীবনযাপন করছেন।

ভুক্তভোগী সাহাদুল ইসলাম বলেন- ছোট বেলায় বাবা মারা যাওয়ার পর মা ভিক্ষা করে আমাকে বড় করে। আমাদের আদিবাড়ি ছিলো ইউনিয়নের আটপুনিয়া গ্রামে, সেখানে আমার নিজ নামে ২৩ শতক জমির ওপর বাড়ি ছিলো। যাহা বিগত ১৯৮৭-৮৮ সালের বন্যায় যমুনাশ্বরী নদী ভাঙ্গনে নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেলে আমার মা ও স্ত্রীসহ বড়বালা ইউনিয়নস্থ হাছিয়া ছড়ান মৌজার ছড়ান বাজার সংলগ্ন ৩.৮৪ একর সরকারী খাস জমির মধ্যে ০.১০একর (দশ শতক) জমিতে দীর্ঘ ৩০ বছর ধরে বসবাস করে আসছি (যাহার ডিপি নং-১, দাগ নং-৯০৮/১১৫৬) (পূর্বের মৌজা- হাছিয়া ছড়ান, জেএল নং-৪৩, খতিয়ান নং-০১, দাগ নং-৫৫২/৯০৮)। দিন মজুর সাহাদুল মিয়ার দুই মেয়ে মৌসুমী ও তামান্নাকে  নিয়ে ছিলো সুখী পরিবার । কিন্তু হঠাৎ ৩০ বছর পর দমকা হাওয়া তার কেড়ে নিলো সুখী পরিবার প্রতিবেশী সৈয়দ আলীর চক্রান্তে সরকারী রায়ে উপজেলা ভূমি কমিশনার রোকছেনা বেগম ভেঙ্গে ফেললো তার ঘরবাড়ি বলে দাবী।

সাহাদুল ইসলাম এর স্ত্রী তানজিলা বেগম জানান- আমরা এই জমি বন্দবস্ত করার জন্য কয়েকদফা আবেদন করি বারবার ইউনিয়ন ও ভূমি কর্মকর্তা আমাদের আশ্বাস দেন। কিন্তু সেদিন সকালে রান্না করছিলাম হঠাৎ কোন প্রকার নোটিশ ছাড়াই গাড়ি আসি আমাদের ঘরবাড়ি ভেঙ্গে দিলো। আমরা ও এলাকাবাসীরা সকলে ভূমি কর্মকর্তাকে বাড়িটি না ভাঙ্গার জন্য অনুরোধ জানাই কিন্তু কোন কাজে আসেনি আমাদের কথা। জানতে পারলাম এই জমি বন্ধবস্ত পেয়েছে আমাদের প্রতিবেশী সৈয়দ আলী। আর এই প্রভাবশালী সৈয়দ আলীর ছেলেদের অত্যাচারের কারণে বড় মেয়েকে বিয়ে দিয়েছেন বলে জানান তিনি।

এদিকে কান্নার স্বরে যৌন নির্যাতনের হাত থেকে বাঁচার জন্য আকুতি জানান কলেজ পড়–য়া সাহাদুলের ছোট মেয়ে তামান্না আক্তার সুমী (১৭)। দীর্ঘদিন ধরে কলেজ গামী ছাত্রী এই তামান্নাকে  জব্দ ও অকথ্য ভাষায় গালি কিংবা যৌন নির্যাতনের হুমকি দিচ্ছে পাশের বাড়ির সৈয়দ আলীর ছেলে সালমান ও শাকিল।  এ বিষয়ে বার বার  চেয়ারম্যানকে বিচার দিয়ে মেলেনি সুরাহা।

বন্ধবস্ত গ্রহণকারী সৈয়দ আলীর সাথে আলাপ কালে তিনি জানান- তার নামে ২০ শতক খাস জমি বন্ধবস্ত আছে। কিন্তু কোন অংশে তার ২০ শতক জমি আছে সে বিষয়ে তিনি কিছু জানেন না। তিনি বলেন- আমি আবেদন করেছি রায় পেয়েছি আপনারা সরকারী কর্মকর্তাদের জিঙ্গাসাবাদ করেন। সাহাদুল ইসলামের মেয়েদের আপনার সন্তানেরা বিরক্ত করে কেন জানতে চাইলে তিনি এসব বিষয়ে কথা বলতে নারাজ।

এ বিষয়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রোকসানা বেগম এর সাথে মুঠোফোনে কথা বললে জানান- জেলা প্রশাসকের নির্দেশে ও আইন মোতাবেক উক্ত স্থাপনা উচ্ছেদ কার্যক্রম চালানো হয়েছে। কে বন্ধবস্ত পেল আর কে পেল না এটি যাচাই-বাছাই করে উচ্ছেদ মামলা রায় রয়েছে।

পত্রপত্রিকা ও অভিযোগের ভিত্তিতে উপজেলা ইউনিটি ফর ইউনিভার্স হিউম্যান রাইটস্ অব বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন এর চেয়ারম্যান আজাহারুল ইসলাম চৌধুরী নওশাদ ও সচিব আশিকুর রহমানসহ তদন্তদল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। পরিদর্শন শেষে চেয়ারম্যান বলেন- সরকার আশ্রয়ণ প্রকল্পের মাধ্যমে ভূমিহীনদের বাড়ি করে দিচ্ছে। সরেজমিনে পরিদর্শন করে জানতে ও দেখতে পারি যে- সাহাদুল ইসলাম একজন প্রকৃত ভূমিহীন। আমরা উক্ত বিষয় নিয়ে বিভিন্ন দপ্তরে আবেদন করবো যাতে প্রকৃত তথ্য এবং ভূমিহীন সাহাদুল ইসলাম ন্যায্য বিচার পায়।

সাইবার ‍নিউজ একাত্তর/ ২৪শে জুন, ২০১৯ ইং/হাফিজুল

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে ভাগ করুন

খন্দকার ভবন তানোর থানার মোড় প্রাইমারী স্কুল সংলগ্ন তানোর, রাজশাহী থেকে প্রকাশিত। মোবাইল: ০১৭১৫-২৯৭৫২৪, ০১৭১৬-৮৪৪৪৬৫, ০১৯২০-৪৪০১১২ E-mail: cbnews71@gmail.com Web: www.cybernews71.com Facebook: www.facebook.com/cbnews71 www.twitter.com/CyberNews71 Youtube: //www.youtube.com/cbnews71

© কপিরাইট : খন্দকার মিডিয়া গ্রুপ

 বাল্যবিবাহ রোধ করুন, মাদক মুক্ত সমাজ গড়ুন।

ব্রেকিং নিউজ :